[pigeons farm] গিরিবাজ রেসিং বা পাল্লার কবুতর নিয়ে ছোট খাটো কিছু কথা। some effective information of racing pigeons

[pigeons farm] গিরিবাজ রেসিং বা পাল্লার কবুতর নিয়ে ছোট খাটো কিছু কথা। some effective information of racing pigeons

আসসালামু আলাইকুম সবাই কেমন আছেন…..? আশা করি সবাই ভালো আছেন । kobutor.net এর সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ সবাইকে। আজ গিরিবাজ রেসিং বা পাল্লার কবুতর নিয়ে ছোট খাটো কিছু কথা বলবো। বর্তমান যে পরিস্থিতি চলছে কম বেশি সবার ই মন টা খারাপ, আমরা সকলে Home Qurantine এ আছি  তাই আপনাদের সময় কাটানোর জন্য এবং কিছু সাধারণ টিপস দেওয়ার জন্য আমার এই ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা।

আমরা যারা গিরিবাজ কবুতর পালি
সবার ই কম বেশি একটা শখ আছে কবুতর রেস করা বা পাল্লা করা। তবে খুব সাধারন কিছু ভুলের জন্য আমরা আমাদের শখ গুলো পূরণ করতে পারিনা।
এখন সবার মনে প্রশ্ন জাগবে যে ভুলটা কি।।
ভুলটা হলো শর্টকাট নেওয়া ।
শর্টকাট এর কথা কেন বললাম অনেকে হয়তো বুঝতে পারেন নাই, আমরা যারা নতুন কবুতর পালা সুরু করি এবং স্বপ্ন দেখি কবুতরের রেস করবো, বিজয়ী হবো ইত্যাদি অনেক কিছু। এই জিনিসটা চিন্তা করে আমরা শর্টকাট ব্যবহার করি এটাই হলো আমাদের ভুল।
এখন সর্টকাট বলতেন কোনটাকে বুঝিয়েছি অনেকেই বুঝতে পারছেন না।
আচ্ছা এখন খুলে বলি সর্টকাট টা কি।
শর্টকটা হলো আমরা অনেকেই চিন্তা করি যে, যে সকল কবুতর গুলো রেস করে বা 100 কিলো থেকে ব্যাক করে সেগুলোর বাচ্চা কালেকশন করবো এবং সেগুলো দিয়ে রেস করবো, এগুলো 100 কিলো না হলে ও 50 কিলো রেস করতে পারবে, এবং আমাকে বিজয়ীর সম্মান এনে দিতে পারবে, বেস আমিও হয়ে যাব একজন বড় কবুতর পালক। কোন ঘাটাঘাটির প্রয়োজন নাই শুধু টাকা ঢালবো এবং রেজাল্ট কিনবো, এটাই হলো শর্টকাট।
অনেকেই এভাবে কবুতর কিনে রেস করে যখন রেজাল্ট না পাই তখন মালিক কে গালাগালি করে মালিকের নামে বিভিন্ন মন্তব্য করে এবং চিটার বাটপার উপাধি দিয়ে দেই।তবে একটা জিনিস কি জানেন অন্যের দিকে যখন আপনি একটি আঙ্গুল দিবেন বাকি তিনটি আঙ্গুল আপনার দিকে থাকে
অতি সাধারণ একটা বিষয়
রেস করতে হলে ভালো কবুতরের সাথে সাথে ভালো পালক ও হওয়া প্রয়োজন। একটা ভালো কবুতর পালক নরমাল কবুতর দিয়ে রেস করে রেজাল্ট করতে পারে তবে একটা খারাপ কবুতর পালক ভালো  কবুতর দিয়ে ও রেজাল্ট করতে পারে না।
ছোট একটা উদাহরণ
ধরেন আপনি বাইক চালাতে পারেন না
তবে আপনার ইচ্ছা আপনি বাইক চালিয়ে সাজেক ভ্যালি ঘুরতে যাবেন।আপনার কাছে বর্তমানে কোন বাইক নেই আপনি অনেক জায়গায় দেখলেন, অনেক রিচার্জ করলেন তারপর পেলেন যে Yamaha R15 (V3) মডেলের বাইক টা সাজেক ভ্যালিতে রাইড করার জন্য খুব ভালো। আপনি তা ক্রয় করে ফেললেন এবং মোটামুটি বাইক চালানো শিখে গেলেন ১-২ সপ্তাহের মধ্যে তারপর দ্বিতীয় সপ্তাহে আপনি এবং আপনার বন্ধুরা সবাই এক হয়ে সাজেক ভ্যালির উদ্দেশ্যে রওনা দিলেন আপনার বন্ধুদের কাছে আছে (bajaj pulsar), (hero Honda hunk), (bajaj discover), এমনকি আপনার আরেক বন্ধুর কাছে আছে (Walton fusion) আপনারা সবাই রাইড শুরু করলেন যখন সাজেক ভ্যালির পথ শুরু হলো তখন দেখা গেল আপনি বাইক টা কন্ট্রোল করতে পারছেন না তবে ওই যে আপনার বন্ধুরা যারা এসেছিল তারা আপনার থেকে অনেক সামনে এগিয়ে গেল এবং খুব ভালো বাইক কন্ট্রোল করছিল এমনকি সেই Walton fusion বাইক চালানো বন্ধুটিও আগে বেরিয়ে গেল তবে আপনার এত দামি এত পাওয়ার ফুল বাইক সবার পিছে রয়ে গেল।কারণ একটাই তাদের এক্সপেরিয়েন্স আছে বলে, নরমাল বাইক দিও তারা আপনার থেকে অনেক সামনে চলে গেল এবং আপনার এক্সপেরিয়েন্স না থাকার কারণে আপনি এত পাওয়ার ফুল জিনিস নিয়ে পিছিয়ে পড়ে রইলেন।
তারপর যখন সেখান থেকে আপনি ফিরে আসলেন বাইকটি আপনি রেখে দিলেন অযত্নে একটা পর্যায়ে বাইকের রং উঠে গেল মরিচা পরলো। তখন আপনি কি দোষ দিবেন Yamaha কোম্পানি কে? বলবেন যে শালার ২ নাম্বার বাইক দিল বাইক চলে না উল্টা মরিচা ধরে নষ্ট হয়ে গেল। নাকি নিজেকে দোষ দিবেন বলবেন যে আমার দোষের কারনে আজ বাইক টি নষ্ট হলো।
কবুতরের ক্ষেত্রে বিষয়টা সেম এত গুলো কথা বলার কারণ হল যাতে আপনার খুব সহজ ভালো ভাবে বিষয়টা বুঝতে পারেন এবং আপনাদের নিজেদের দোষ গুলো ধরতে পারেন।
গিরিবাজ কবুতর এর রেস বা পাল্লা হলো অনেক ধৈর্য্য এবং অনেক সময় এবং অনেক এক্সপেরিয়েন্স এর বিষয় যেটা ১-২ দিনে  বলে বোঝানো সম্ভব না।
আমার মতে কবুতর থেকে শুরু করে রেস পর্যন্ত যদি ১০০ নম্বর ধরি
তার মধ্যে কবুতর পাবে ৩৫
(নজর-১০ বডি ফিটনেস-১০ পাক-১০ বয়স-৫)
 
কবুতরের বাসস্থান পাবে ১০
 
কবুতরের যত্ন পাবে ৫
 
কবুতরের খাবার পাবে ১০
রেস করা বা পাল্লা করার দিনের ওয়েদার পাবে 10
 
মালিক এর এক্সপেরিয়েন্স পাবে ৩০
এই সবকিছু মিলিয়ে হবে ১০০ নাম্বার
যদি এই ১০০ নাম্বার পুরোপুরি মিলে যায় তাহলে কবুতর অবশ্যই রেসে ঘরে ফিরবে এবং বিজয়ী হবে।
তাই আমরা যারা নতুন রেস করি বা সামনে করবো তারা শুধু কবুতর কিনার পিছে না ছুটে নিজের অভিজ্ঞতা বৃদ্ধি করি এবং কবুতর কিভাবে রেস থেকে আসে ,কোন কবুতর গুলা ১০০ কিলো থেকে আসলো, তাদের ওজন কত, তাদের শরীরের গঠন কি রকম, দাঁড়ানোর স্টাইল কেমন, উড়ার পাখা গুলো কি রকম, তার মালিক তাকে কি কি দিল, তার মালিকের বাসস্থান কি রকম, কোন দিন কত ডিগ্রী তাপমাত্রায় কবুতর গুলো ছাড়া হল, কয়টা সময় কবুতরগুলোকে ছাড়া হল,কয় টার সময় কবুতর গুলোকে খাবার এবং পানি দেওয়া হতো,
কয় বেলা দেয়া হলো, রেস করা কবুতর গুলা বাড়ির উপরে কতক্ষণ উঠতো, এক জায়গায় উরতো না দূরে দূরে যেত, ইত্যাদি এই বিষয়গুলো নিয়ে একটু নাড়াচাড়া,ঘাটাঘাটি করি আশা করি সবার ই রেজাল্ট করবে এবং শুরুতে দামি কবুতর দিয়ে রেস পাল্লা না করে নিজের ঘরে যা আছে বা কম দামি কবুতর দিয়ে রোডে নামা ভালো। হারালে কম দামি নরমাল কবুতর হারাবে তবে তার থেকে অনেক কিছু শেখা যাবে।যেটা আ[ pigeons eggs] কবুতরের ডিম পাড়ার সমস্যার সমাধান। Solve the problem of laying pigeon eggsমাদের দামি কবুতর গুলোকে মাইর পড়ার হাত থেকে রক্ষা করবে।
আমার অভিজ্ঞতা থেকে বিষয়টা শেয়ার করলাম।
ভুল কিছু হলে ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন।
ধন্যবাদ সবাইকে এত বড় পোস্ট টি পড়ার জন্য।
পোস্টটি সর্বপ্রথম প্রকাশিত হয়েছেঃ Nayem pigeon’s loft 

Comment Here

Your email won't be public

You can use these HTML tags and markups: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>

*